Lifestyle - লাইফস্টাইল

মেচেতা বা ত্বকের কালো দাগ নিয়ে বিব্রত ?

সাধারণত আমাদের হাত-পায়ের ত্বক বা মুখের ত্বকে ছোপ ছোপ দাগ দেখা যায়।  একেই আমরা মেচেতা বলে থাকি।

আমাদের দেহ-সৌন্দর্যের মূল চাবিকাঠিও এই ত্বক। ত্বকের উপরে কালো দাগ পড়লে কারোরই ভালো লাগে না।

কারও ত্বক সূর্যের আলো শোষণ করতে না পারলে কিছু নির্দিষ্ট অংশে কালো দাগ দেখা দেয়। সূর্যরশ্মির প্রভাবে ত্বকে অতিরিক্ত মেলানিন উৎপন্ন হয়।

এতে ত্বকের কিছু কিছু জায়গায় গাঢ় কালো ছোপ ছোপ দাগ দেখা দেয় যা মেচেতা বা ইংরেজিতে মেলাজমা নামে পরিচিত।

মেচেতা শরীরের অভ্যন্তরে কোন ও ক্ষতি করে না।

কিন্তু কিছু মেচেতা আছে যেগুলোকে স্কিন ক্যান্সার হিসেবে আখ্যায়িত করা যায়। যেমন লেনটিগো ম্যালিগনা, মেলানোসা ও ব্যাসাল সেল কারসিনোমা।

তবে প্রাথমিক পর্যায়ে এগুলো ধরা পড়লে নিরাময় করা সম্ভব।

আবার চিকিৎসকরা বলেন, যাঁরা দীর্ঘ সময় ধরে বাইরে রোদে কাজ করেন, অথচ সানস্ক্রিন লোশন  ব্যবহার করেন না তাঁদের মুখে মেচেতা দেখা দিতে পারে।

কারও কারও ক্ষেত্রে লালচে, কখনও বাদামী, কখনও আবার কালো এবং হলুদ রঙের মেচেতাও দেখা যায়।

একইসঙ্গে এটাও জেনে রাখা ভাল মেচেতা বা ফ্রেকলস ছোঁয়াচে নয়।

মেচেতাকে আটকাতে প্রথমেই আমাদের যেটা করতে হবে সেটা হল সব ক্ষেত্রেই ভালো সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে।

তাহলে মেচেতা  হওয়ার পেছনে যেসব কারণ রয়েছে, সেগুলো প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। বাইরে বের হওয়ার সময় স্কার্ফ, ওড়না বা আঁচল মাথায় জড়িয়ে নিন।

সম্ভব হলে চওড়া ঘেরের টুপি পরুন। ঘাড়-পিঠ ঢাকা, ফুলহাতা জামা পরুন।

ঘরোয়া উপায়ে  মেচেতা দূর করতে হলে ..

** তিন-চার চামচ টক দইয়ে একচামচ মধু মিশিয়ে মুখে মাখুন পনেরো থেকে কুড়ি মিনিটের জন্য। তারপর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দইয়ের

বদলে অ্যালোভেরা গাছের শাঁস ব্যবহার করতে পারেন।

** পাতিলেবুর রসে চিনি মিশিয়ে মেচেতার দাগের উপর হালকা করে ঘষতে হবে যতক্ষণ না চিনির দানাগুলো গলে যায়।

** দু’চামচ অ্যাপল সিডার ভিনিগারের সঙ্গে দু’চামচ জল মিশিয়ে তুলো দিয়ে সারা মুখে লাগিয়ে নিন। ২০-৩০ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন।

** আমন্ড অয়েল ও মধু মুখে লাগিয়ে হালকা করে ঘষুন।  জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। উপকার পাবেন।

** কমলা লেবুর খোসা গুঁড়ো করে তার সঙ্গে দুধ মিশিয়ে নিয়মিত ব্যবহার করতে পারেন। দ্রুত ফল পাবেন।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top