Lifestyle - লাইফস্টাইল

ট্যাটুর শখ, জেনে নিন খুঁটিনাটি

ফ্যাশনের একটি বিশেষ অঙ্গ হয়েছে উঠেছে ট্যাটু।  শরীরের বিভিন্ন অংশকে নানা রঙিন নকশা দিয়ে সাজিয়ে তোলার হিড়িক রয়েছে ফ্যাশনদুরস্তদের কাছে।

কোভিডের কঠিন সময় পেরিয়ে আসার পর আবার ট্যাটুর পার্লারগুলিতে বেশ লাইন পড়ছে।

প্রথমবার ট্যাটু করতে গেলে বেশ কয়েকটি বিষয় মাথায় রেখে চলতে হবে।

নিজের পছন্দ মতো নকশা বেছে নিলেও ট্যাটু করার আগে এবং পরে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। ত্বকের ওপর সূচ ফুটিয়ে তা দিয়ে ডিজাইন ফুটিয়ে তোলা কোনও সহজ কাজ তো নয়।

ট্যাটু শুধুমাত্র একটি ফ্যাশান স্টেটমেন্ট হিসেবে নয়, অনেক সময় এর মাধ্যমে ব্যক্তিত্বের প্রকাশও পাওয়া যায়।

ট্যাটু করানোর আগে যে বিষয়গুলিতে নজর দেওয়া উচিত

১) ট্যাটু করার আগের রাতে কখনোই ক্যাফেইন অথবা অ্যালকোহল জাতীয় পানীয় খাওয়া চলবে না। কারণ এই ধরনের পানীয় রক্ত পাতলা করে দেয়। ফলে ট্যাটু করার সময় রক্তপাতের ঝুঁকি বাড়িয়ে দেয়।

২) করোনা সংক্রমণের সময় ট্যাটু পার্লারের ভিড় এড়িয়ে চলাই ভালো। তাই আগে থেকে অ্যাপয়েন্টমেন্ট করে নেবেন।

৩)খুব সস্তার ট্যাটু পার্লার থেকে ট্যাটু না করানোই ভালো। সস্তার দিকে ঝুঁকতে গেলে আখেরে আপনার ত্বকেরই ক্ষতি হতে পারে।

৪) আগেই দেখে নিন, ট্যাটু স্টুডিও ও ট্যাটু করার যন্ত্রপাতি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন কিনা। পার্লার স্যানিটাইজ করা কিনা আগে থেকে জেনে নিয়ে নিশ্চিত হন।

৫) যে সূচ দিয়ে আপনার ট্যাটুটি আঁকা হচ্ছে সেটি যেন সিল করা প্যাকেটে থাকে। ট্যাটু করতে কোন কালি ব্যবহার করা হচ্ছে তা জেনে নেবেন।

৬) ট্যাটুর ডিজাইন আগে থেকে ঠিক করে ফেলুন। ট্যাটু আঁকার সময় অবশ্যই যেন আর্টিস্টের হাতে গ্লাভস থাকে।

৭) আর যেটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, তা হল ট্যাটু ডাই, যা সহজেই প্রভাব ফেলে ত্বকে।

তবে এতো গেল ট্যাটু করানোর আগের নির্দেশিকা, ট্যাটু করানোর পরেও মেনে চলা উচিত যেসব নিয়ম, সেগুলি হল…

১) ট্যাটু করা ত্বক নখ দিয়ে চুলকোনো বা আঁচড়ানো একেবারেই নিষেধ।

২) ব্যান্ডেজ দিয়ে ঢেকে রাখার কয়েক ঘণ্টা পর ট্যাটু পরিষ্কার করার আগে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে।

ট্যাটু গরম জল দিয়ে ধুয়ে এবং নরম তোয়ালে দিয়ে মুছে নিতে হবে।

জোরে জোরে কখনোই ট্যাটু করা জায়গায় ঘষা যাবে না। ব্যবহার করুন অ্যান্টিবায়োটিক ক্রিম।

৩) ট্যাটু করনোর ২৪ ঘন্টা পর ব্যান্ডেজ খুলে পরিষ্কার জলে ধুয়ে ফেলুন এবং শুকিয়ে নিন।

৪) সূর্যের আলো থেকে দূরে থাকুন।

৫) ক্ষত না শুকোনো পর্যন্ত সাঁতার কাটবেন না।

৬) এমন কোনও ওয়ার্কআউট করবেন না যা ট্যাটু করা ত্বকের ক্ষতি করে ।

৭) কোনওরকম অ্যালার্জি বা ব্যথা হলে পরামর্শ নিন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top