Lifestyle - লাইফস্টাইল

বাড়িতেই ঝকঝকে করুন সোনার গয়না

সোনার গয়নার (Gold Jewelry)  প্রতি দুর্বলতা নেই এমন মেয়ে খুব কমই আছে। রোজকার গয়না ব্যবহার করলে ঘাম, ধুলো-ময়লা জমে গয়নার দ্যুতি কমতে থাকে।  আবার দীর্ঘদিন বাক্সবন্দি থাকলেও পছন্দের সোনার অলঙ্কারের ঔজ্জ্বল্য ফিকে হতে থাকে।  উৎসবে অনুষ্ঠানে বা কোনও বিয়ের নিমন্ত্রণে সেসব গয়না বের করে পরা হয়। তখন হয়তো হাতে সময় থাকে না গয়নার দোকানে নিয়ে গিয়ে পালিশ করিয়ে আনার।

তবে বাড়িতে অতি সহজ উপায়েই পরিষ্কার করা যেতে পারে সোনার গয়না ! এমন কিছু উপায় জেনে নেওয়া যেতে পারে, যার জন্য আপনার সোনার গয়না দীর্ঘদিন ভালো থাকবে।

লিকুইড সোপ বা ডিটারজেন্ট

উষ্ণ জলে সামান্য বাসন মাজার লিক্যুইড সোপ বা ডিটারজেন্ট মেশান। নরম ব্রাশ নিন। আরও একটি বাটিতে পরিষ্কার জল নিন। লিকুইড ডিটারজেন্ট ও জলের মিশ্রণে সোনার গয়না ১৫ মিনিট ডুবিয়ে রাখুন।

এরপর টুথব্রাশ দিয়ে ধীরে ধীরে ঘষে নিন। ময়লা উঠে আসবে।

জলে ধুয়ে পেপার টাওয়েল বা পরিষ্কার নরম কাপড় দিয়ে মুছে বাতাসে শুকিয়ে নিন। সোনার গয়না ঝকঝকে হয়ে উঠবে এভাবেই।

ভিনিগার বেকিং সোডা

৩০ গ্রাম বেকিং সোডা নিন এবং ৫০ মিলি ভিনিগার নিন। মিশ্রণটি বানিয়ে নিন। একটি নতুন টুথব্রাশ নিন। সেটা ওই মিশ্রণে ডুবিয়ে গয়নায় ভালো করে লাগিয়ে নিন। কিছুক্ষণ ওভাবেই ঘষুন। এই মিশ্রণটি লাগানোর আগে গয়নাগুলো ভিনিগারে কিছুক্ষণ ডুবিয়েও রাখতে পারেন।

এতে ময়লা বেশি থাকলে উঠে যাবে। পরিষ্কার করার পর ভালো করে জলে ধুয়ে নিতে ভুলবেন না।

সিঁদুর

বলা হয় ব্যবহারের পর সোনার গয়নায় সিঁদুর মাখিয়ে রাখলে আগের মতোই উজ্জ্বলতা থাকে।

হলুদ জল

সোপ বা ডিটারজেন্ট দিয়ে পরিষ্কার করার পর কিছুটা হলুদগুঁড়ো নিয়ে তাতে জল মিশিয়ে সোনার গয়না ডুবিয়ে রাখতে পারেন। এছাড়া কাঁচা হলুদ বেটে সোনার গয়নায় মাখিয়ে রাখুন। ১৫- ২০ মিনিট পর নরম ব্রাশ দিয়ে ঘষে জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

সোনার আসল রং ফিরে আসবে।

১) সোনা খুব নরম ধাতু। তাই ব্রাশ করা এবং মোছার সময় খুব আলতো করে প্রয়োগ করুন। জোরে চাপ দেবেন না।

২) জলও যেন খুব গরম না থাকে। একেবারে হালকা গরম জল ব্যবহার করুন।

৩) গয়না মোছার জন্য যে কাপড় ব্যবহার করছেন, তা যেন বেশি রুক্ষ না হয়। পরিষ্কার সুতির পাতলা কাপড় কিংবা কোমল তোয়ালে দিয়েই সোনার গয়না পরিষ্কার করা ভাল।

৪) যে ব্রাশ ব্যবহার করবেন, সেটিও হতে হবে খুব কোমল। বেবি সাইজের নতুন ব্রাশ ব্যবহার করলে ভাল।

গয়নাগুলো রাখার জন্য এমন বাক্স বাছুন, যেটা বাইরে থেকে শক্ত এবং বাক্সের ভেতরটা নরম।

 

 

 

 

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top