Physical Health - শরীর স্বাস্থ্য

হঠাৎ দাঁতের ব্যথা, জেনে রাখুন এই ক’টি টোটকা

মাঝরাতে পিহুর হঠাৎ করেই শুরু হল দাঁতের অসহ্য যন্ত্রণা।  হাতের কাছে না ছিল কোনও পেইন কিলার, না কোনও ওষুধ।  দাঁতের গোড়া ফুলে ব্যথায় কাবু গোটা রাত কেটেছে বিনিদ্র অবস্থায়।  ব্যথায় কাতর পিহুর জানা ছিল না কয়েকটি টোটকার কথা।

সেগুলি প্রয়োগ করলে হয়ত সেরাত্রে কিছুটা আরাম মিলত পিহুর।

কারণ দাঁত ব্যথা বলে কয়ে আসে না। হঠাৎ যদি দাঁতে ব্যথা শুরু হয়ে যায়, দিশেহারা হয়ে আমরা ওষুধের খোঁজ করি।

কিন্তু কিছু উপায় জানা থাকলে কয়েক মিনিটের মধ্যেই দাঁত ব্যথার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

চিকিৎসকের কাছে না যাওয়া পর্যন্ত কয়েকটা ঘরোয়া টোটকায় কিন্তু দাঁতের ব্যথা প্রশমিত করে রাখতে পারবেন। তাই অবশ্যই হাতের কাছে রাখুন এই জিনিসগুলি। এগুলির ব্যবহারে কমে যেতে পারে ব্যথা।

দেখে নেওয়া যাক, সেগুলি কী কী :

লবঙ্গ:  লবঙ্গের মধ্যে রয়েছে ব্যথা কমানোর মতো বিশেষ কিছু উপাদান। দু’টি লবঙ্গ থেঁতো করে কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েলের সঙ্গে মিশিয়ে দাঁতে লাগান। অথবা দু’টি লবঙ্গ চিবিয়ে ব্যথার স্থানে জিভ দিয়ে চেপে রাখুন।

রসুন: যেকোনও ব্যথার ক্ষেত্রেই রসুন খুবই উপকারী। রসুনকে থেঁতো করে, রস বের করে সেই রস ব্যথা দাঁতের জায়গাতে রাখলে সমস্যা অনেকটা কমে যায়। বেশি যন্ত্রণা হলে এককোয়া রসুন চিবিয়ে খান।

গোলমরিচ: নুনের সঙ্গে গোলমরিচ মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। দাঁতে লাগিয়ে রাখুন কয়েক মিনিট। ব্যথা কমে গেলেও বেশ কয়েকদিন দাঁতে লাগান।  ভালো ফল পাবেন ।

নুন:  ব্যথার জন্য অত্যন্ত  উপকারী হল নুন । মুখ, গলার ইনফেকশন দূর করতেও কাজে লাগে নুন । দাঁতে ব্যথা হলে উষ্ণ গরম জলে নুন মিশিয়ে কুলকুচি করলে ব্যথা থেকে রেহাই পাওয়া যায়। মাড়িতে প্রদাহ হলে নুনজলে কুলকুচি করলে আরাম মেলে।  দিনে ৩-৪ বার এইভাবে কুলকুচি করতে পারেন।

পেয়ারা পাতা: পেয়ারা পাতায় রয়েছে অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি গুণ।  পেয়ারা পাতা দাঁত ব্যথায় দারুণ উপকারী। দু’টি পেয়ারা পাতা চিবিয়ে ব্যথাযুক্ত দাঁতে চেপে রাখুন। আরাম পাবেন।

বরফ: উপরের উপাদানের মধ্যে যদি একটিও না পাওয়া যায় তবে বাড়িতে ফ্রিজে বরফ থাকলে তা ব্যবহার করতে পারেন। এক টুকরো  বরফ তুলো বা কাপড়ে মুড়ে দাঁতে চেপে রাখুন, ব্যথা কমতে থাকবে।

দাঁতের ব্যথা কমাতেও কাজে লাগে কোল্ড কমপ্রেস। মাড়িফোলা অথবা ইনফ্ল্যামেশন কমাতে সাহায্য করে এই কোল্ড কমপ্রেস। একটা তোয়ালে জড়ানো আইস ব্যাগ যেখানে ব্যথা হচ্ছে সেখানে চেপে রাখুন। কয়েক ঘন্টা অন্তর কোল্ড কমপ্রেস করতে হবে।  তাতে ব্যথা দূর হবে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top