Lifestyle - লাইফস্টাইল

ঘামাচির অস্বস্তি থেকে রেহাই মিলবে কী করে

গ্রীষ্মকাল মানেই প্যাচপেচে ঘাম ।  আর ঘাম থেকেই শরীরে সবচেয়ে অস্বস্তিকর সমস্যাটি যা আমাদের নাজেহাল করে তা হল ঘামাচি ।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে গরম । এই গরমে ছোট থেকে বড় সবার অবস্থাই বিরক্তিকর । কোন ও কাজে ঘরের বাইরে বের হলেই ঘামে ভিজে যাচ্ছে শরীর । যা থেকে দেখা দিচ্ছে ঘামাচির সমস্যা

গরমে ঘাম হলেই ঘামের সঙ্গে ময়লা ও ব্যাকটেরিয়া মিশে দেহের ঘর্মগ্রন্থিগুলোর মুখ আটকে যায় ।  তখন ঘাম বের হতে না পেরে সেখানে আটকে গিয়ে ঘামাচি হয় । এর সাথে যুক্ত হয় চুলকানি বা নানারকম সংক্রমণ ।

উষ্ণ-আর্দ্র আবহাওয়ায় ঘামাচি, র‌্যাশ, চুলকানির সমস্যা খুবই স্বাভাবিক । একবার ঘামাচি হলে তা কমতে সময় লাগে । দিনে বেশ কয়েকবার স্নান করে বা ঘামাচির পাউডার মেখে সাময়িক আরাম পাওয়া গেলেও পরবর্তীতে আবার নতুন করে সমস্যা তৈরি হয় ।

ঘামাচির যন্ত্রণা কমাতে কী করবেন ? চলুন জেনে নেওয়া যাক

১.গরমকালে ঘাম থেকে মুক্তি নেই, ঘাম হবেই । চেষ্টা করুন কিছুক্ষণ অন্তর ঘাম মুছে ফেলতে । তবে ঘাম মোছার সময় অতিরিক্ত চাপ দিয়ে মুছবেন না । আর সবসময় পরিষ্কার নরম সুতির রুমাল ব্যবহার করুন । ঘামে রুমাল ভিজে গেলে বদলে অন্য রুমাল নিন ।

২. ঘামাচি কমানোর সবচেয়ে ভালো উপায় হলো পরিচ্ছন্ন থাকা । যদি ঘামাচির সমস্যা এড়ানোর জন্য কিংবা তা কমানোর চেষ্টায় ঘামাচিনাশক পাউডার মেখে রাতে ঘুমতে যান, তবে সকালে উঠে তাও ভালোভাবে সাবান দিয়ে পরিষ্কার করে ফেলুন । গায়ে পাউডার জমে থাকাও এসময়ে স্বাস্থ্যকর নয় ।

৩. আজকাল নানা রকম  জীবাণুনাশক লোশন পাওয়া যায় । ঘামাচি কমাতে তা বেশ কার্যকর । তেমন কিছু মাখতে পারেন ।

৪. সম্ভব হলে দিনে দু’বার স্নান করুন। স্নান করতে কোনও কম ক্ষারযু্ক্ত সাবান ব্যবহার করুন । ঘামাচি থাকলে বেশি ঘষবেন না । হালকা হাতে কোনও নরম লুফা ব্যবহার করে অল্প অল্প স্ক্রাব করুন ।

৫.  স্নানের জলে মিশিয়ে দিতে পারেন লেবুর রস কিংবা নিমপাতা । চাইলে অ্যান্টিসেপ্টিক লোশন জলে মিশিয়ে নিতে পারেন, সংক্রমণ কমবে ।   এছাড়াও চন্দন বেটে লাগালে  আরাম মিলবে ঘামাচির যন্ত্রণা থেকে ।

৬. গরমের দিনে সুতি ও ঢিলেঢালা পোশাক পরুন । গায়ের সঙ্গে লেগে থাকে এমন পোশাক এড়িয়ে চলুন ।

৭.   শরীর ভেতর থেকে গরম হয়ে গেলে ঘামাচি বাড়ে । বেশি করে তরলজাতীয় খাবার খান । লেবুর জল, ডাবের জলের মতো পানীয় বেশি করে খাওয়ার অভ্যাস করুন ।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top