Mental health মনের যত্ন

অনিয়ন্ত্রিত অ্যান্টিবায়োটিকের অভ্যাসে হতে পারে ডিমেনশিয়া (Dementia)

মুঠো মুঠো  অ্যান্টিবায়োটিক খাচ্ছেন, সাবধান! হতে পারে ডিমেনশিয়া (Dementia) ! শুনে অবাক লাগলেও সাম্প্রতিক সমীক্ষা কিন্তু তাই বলছে । আবার অনেকের মধ্যে এই ধারণা আছে যে,  শুধু বার্ধক্যের কারণেই ডিমেনশিয়া হয় ।  এটা  কিন্তু সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারণা । মধ্যবয়স থেকেই কিন্তু এই রোগের সূত্রপাত হয় । কমবয়সেও অনেকে ডিমেনশিয়ার শিকার হতে পারেন । সেক্ষেত্রে মাথায় আঘাত, হরমোনের ব্যাঘাত এবং অন্যান্য সমস্যার কারণে এটি হতে পারে ।  এমনকি ঘুমের ধরন, খাদ্যাভ্যাস, ব্যায়াম, মানসিক চাপ এসবই প্রভাব ফেলে এক্ষেত্রে । এছাড়াও ডিমেনশিয়ার জন্য দায়ী কিন্তু কিছু ওষুধও । কম বয়সে কিছু সাধারণ ওষুধের অতিরিক্ত ব্যবহারের জন্য পরবর্তী সময়ে ডিমেনশিয়া পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা গবেষণা করে দেখেছেন ।

অতিরিক্ত অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার প্রবণতা ডিমেনশিয়ার দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারে বলে একটি গবেষণায় বলা হচ্ছে ।  যাঁরা টানা ২ মাসের বেশি সময় ধরে অ্যান্টিবায়োটিক খেয়েছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে এই ভুলে যাওয়ার সমস্যা কিন্তু সবচেয়ে বেশি দেখা যাচ্ছে ।

বর্তমানে আমরা অ্যান্টিবায়োটিক নির্ভর হয়ে পড়ছি ।  সামান্য রোগের উপসর্গ  দেখা দিলেই মুড়ি-মুড়কির মত অ্যান্টিবায়োটিক নেওয়া শুরু করি । তাও আবার চিকিৎসকের পরামর্শই ছাড়াই । দীর্ঘমেয়াদে এই সব অ্যান্টিবায়োটিকের (Antibiotic) পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াই হল ভুলে যাওয়া রোগ বা ডিমেনশিয়া ।  এছাড়াও অনেকদিন ধরে চলা অ্যান্টিবায়োটিকের প্রভাবে লিভারের সমস্যা থেকে শুরু করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা চলে যাওয়ার মত উপসর্গ দেখা দিতে পারে ।  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে  ১৪৫৪২ জন মহিলার উপর এই সমীক্ষা চালানো হয় । তবে যেহেতু খুব কম সংখ্যক মহিলার উপরে এই গবেষণাটি চালানো হয়েছিল তার ফল নিয়ে চিকিৎসকরাও খুব একটা নিশ্চিত হতে পারছেন না ।

এমনিতেই বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভুলে যাওয়ার সমস্যা বাড়ে ।  অতিরিক্ত অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার ফলে কমবয়সেই সেই সমস্যা দেখা দিতে পারে । বিশেষত মহিলাদের । মস্তিষ্কের ডিজেনারেশনের (Degeneration) কারণে ডিমেনশিয়ায় আক্রান্তরা নিজের দৈনন্দিন কার্যকলাপের জন্য পরিবারের সদস্যদের ওপর সম্পূর্ণ ভাবে নির্ভরশীল হয়ে পড়েন । এরফলে তাঁদের প্রচুর সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় । কারণ ডিমেনশিয়ায় আক্রান্ত হলে সেই রোগী নিজের প্রয়োজনীয় কাজটুকু করার ক্ষমতাও হারিয়ে ফেলেন । ডিমেনশিয়া বার্ধক্যের সাধারণ লক্ষণ ভেবে ভুল করে ফেলেন অনেকেই ।

তবে ডিমেনশিয়াকে এড়ানোর উপায় নিয়ে প্রচুর গবেষণা চললেও এখনও খুব সফল কোনও উপায় খুঁজে পাওয়া যায়নি । কিছু কিছু কারণ খুঁজে পাওয়া গেছে যার মধ্যে কোনো কোনোটির প্রতিকার সম্ভব । একইসঙ্গে এটাও বলে রাখা দরকার সমস্ত ভুলে যাওয়ার উপসর্গই কিন্তু ডিমেনশিয়া নয় । এগুলিকে ডাক্তারি ভাষায় Mild Cognitive Impairment বলা হয়ে থাকে ।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top