Diet - ডায়েট

গরমের (Summer) তাত থেকে বাঁচতে পাতে পড়ুক এই কটি সুপার ফুড (Super Food)

বসন্ত বিদায় নিয়েছে । এবার গরমের (summer) পালা ।  প্রখর দাবদাহে এমনিতেই শরীরের জল শুকিয়ে যায় খুব তাড়াতাড়ি । বাইরের তাপমাত্রা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের দেহের ভিতরেও অনেক পরিবর্তন ঘটে । যার মধ্যে ডিহাইড্রেশনও একটি । গরম মানেই ডিহাইড্রেশনের ঝুঁকি অনেকটাই বেশি থাকে ।  যাঁরা রোদে ঘোরাঘুরি করে কাজকর্ম করেন, তাঁদের গরমে শরীরকে ফিট রাখা অত্যন্ত জরুরি ।

অনেকসময় শুধু জল খেয়ে শরীরের জলের চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হয় না । কারণ, এই গরমে ঘামে শরীর থেকে প্রচুর জল ও নুন বের হয়ে যায় । শরীরে জলশূন্যতা দেখা দেয় । সাধারণত এর ফলে শরীরের রক্তচাপ কমে যায় । দুর্বল লাগে । মাথা ঝিমঝিম করে । সুতরাং শুধু জল নয়, গ্রীষ্মের খাদ্যতালিকায় প্রচুর পরিমাণে জলযুক্ত খাবার অন্তর্ভুক্ত করা উচিত ।

গরমে ভাল থাকতে কী কী খাবেন ?

দই গরমে সকালের জলখাবারে বা দুপুরের লাঞ্চে দই রাখা যায় । কারণ দই যেমন পেটের পক্ষে খুব উপকারী তেমনি এতে পুষ্টিগুণ ঠাসা । দইয়ে  ক্যালশিয়াম, ভিটামিন বি-১২, পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম পর্যাপ্ত পরিমাণে থাকে ।

টম্যাটো টম্যাটোর  প্রায় ৯৪ শতাংশ জল । তাই জলের ঘাটতি মেটাতে কাঁচা অবস্থায় স্যালাড, সবজি বা স্যান্ডউইচে দিয়ে খেতে পারেন । আবার স্যুপ হিসেবেও খাওয়া যায়। এছাড়াও এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-এ । যা চোখের রোগ এবং উচ্চ রক্তচাপ কমাতে সাহায্য করে ।

ডাল খাবারের তালিকায় রোজ একবাটি করে পাতলা ডাল রাখুন । ডালের জল থেকে যেমন শরীরে জলের অভাব মিটবে । নানাধরণের ডাল থেকে শরীরের জন্য উপকারী সব উপাদানও মিলবে । স্বাস্থ্যকর এই শস্যেতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, প্রোটিন । এমনকি ডাল খেলে পেটের সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে, হজমশক্তি বাড়ায়, দেহে নতুন কোষ তৈরিতে সাহায্য করে । এছাড়া রয়েছে ভিটামিন ও খনিজ । ভিটামিন-এ, ভিটামিন-বি, ভিটামিন-সি, ভিটামিন-ই, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন ও জিঙ্ক ।

শশা গ্রীষ্মের ফল হিসেবে শশা সকলের কাছে পরিচিত ।  ৯৫ শতাংশ শুধুমাত্র জল নিয়ে গঠিত । এছাড়াও এতে পটাশিয়াম পাওয়া যায় । যা হিটস্ট্রোক প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে ।

তরমুজ তরমুজের চমৎকার ও ঠান্ডা স্বাদের কারণে গ্রীষ্মকালে এই ফলটির  চাহিদা বেড়ে যায় । তরমুজে প্রায় ৯২ শতাংশ জল থাকে । এটি হিট স্ট্রোক থেকেও রক্ষা করে । তরমুজ আমাদের হার্টের স্বাস্থ্যের জন্যও খুব ভাল বলে মনে করা হয় ।

ঝিঙে – গ্রীষ্মের সুপারফুডের মধ্যে ঝিঙের নামও রয়েছে । ঝিঙেতে প্রায় ৯৫ শতাংশ শুধুমাত্র জল । এর পাশাপাশি এতে অনেক ধরনের অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ফাইবার, ভিটামিন রয়েছে ।  তাই ঝিঙে দিয়ে পাতলা ঝোল বা তরকারি খেলে শরীরের জলের ঘাটতি অনেকটাই মিটতে পারে ।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top