Mental health মনের যত্ন

সুন্দর কথা বলে তাক লাগাতে চান !! মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি

সুন্দর কথা দিয়েই মানুষের মন জয় করে নেওয়া যায় । কথার ফাঁদেই অনেকে জব্দ হয়ে পড়েন, আবার কথা দিয়েই মানুষকে আঘাত করা যায় সহজেই । ‘কথা’ দু’অক্ষরের এই শব্দটি ছোট্ট হলেও এর অভিঘাত কিন্তু  যথেষ্ট শক্তিশালী ।

সুন্দরভাবে কথা বলতে না পারার কারণে অনেক সময় জীবনে পিছিয়ে পড়তে হয় । সুন্দর করে কথা বলাটা খুব কঠিন কোনও কাজ নয় । শুধুমাত্র চর্চার বিষয় । সুন্দর করে কথা বলা পুরোটাই চর্চার ওপর নির্ভর করে । নিয়মিত চর্চার মাধ্যমে আপনিও হয়ে উঠতে পারেন আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু ।  কেবলমাত্র কথার জাদুতেই বশ করে ফেলতে পারবেন শ্রোতাদের ।

স্মার্টনেসের (smartness) প্রথম শর্ত সুন্দর কথা বলা, যদিও অনেকেই এই গুণে বঞ্চিত। গুছিয়ে কথা বলতে না পারার অন্যতম কারণ হল খুব বেশি নার্ভাস বা বিচলিত হওয়া । আপনি কথা বলার আগেই ধরে নেন যে, অন্যজন হয়তো কথাটা খারাপভাবে গ্রহণ করবে । অনেকে কখন কী বলে ফেলেন তার নিয়ন্ত্রণ রাখতে পারেন না ।  কয়েকটি উপায় রইল এই প্রতিবেদনে যাতে আপনি সুন্দরভাবে কথা বলার কৌশলটি খুব সহজেই আয়ত্ত করতে পারেন ।

মনযোগী শ্রোতা হন : ভাল বক্তা হতে গেলে প্রথমেই আপনাকে একজন ভাল শ্রোতা হতে হবে ।  শুনতে হবে বেশি এবং বলতে হবে কম । তাই বলার আগে সচেতন হোন কখন, কাকে কী বলে ফেলছেন । কথা বলার চেয়ে শোনার প্রতি বেশি মনোযোগী হোন । কারণ ভাল বক্তার চেয়ে ভাল শ্রোতা অন্যকে বেশি আকৃষ্ট করে ।

আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে কথা বলুন : যে কথাটা বলতে চাইছেন সেটা আত্মবিশ্বাসের (confidence) সঙ্গে বলবেন । দ্বিধা নিয়ে কিছু বলা উচিৎ নয় । বক্তাকে দ্বিধান্বিত দেখলে শ্রোতারা বক্তার ওপর আস্থা হারিয়ে ফেলে । তাই তাড়াহুড়ো না করে সময় নিয়ে স্পষ্ট করে বলুন । খেয়াল রাখবেন যা বলছেন তাতে যুক্তি আছে কতটা । অন্যকে তির্যক মন্তব্য না করে আপনার কথা বলুন ।

বই পড়ুন : ভালো বক্তব্যর রসদ পেতে বেশি করে বই পড়ুন । উচ্চারণ ঠিক করুন । আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে বলুন, দেখবেন নিজের প্রতি আস্থা ও সাহস বাড়বে ।

বডি ল্যাঙ্গোয়েজ(Body Language) : আপনি যখন কথা বলছেন তখন সুন্দর কথার সঙ্গে শ্রোতারা আপনাকে লক্ষ্য করেন, আপনার বডি ল্যাঙ্গোয়েজ কেমন । কথা বলার আগে এই বিষয়গুলিও মাথায় থাকুক । হাসি মুখে কথা বলুন। সম্মান রেখে বা শ্রদ্ধাপূর্ণ কথা বলুন ।

বিনয় ও মমতাপূর্ণ কথা বলুন । আন্তরিক বিনয় সকল সৎগুণের উৎস । কোমলভাবে (softly) কথা বলুন । এতে মানুষ আপনার কথায় মনোযোগ দেবে এবং মানবে।

বিরতি : কথা বলার সময় একটু বিরতি দিয়ে কথা বললে শ্রোতাদের বুঝতে সুবিধা হয় । বেশি তাড়াতাড়ি কথা বলা খুব বাজে একটি অভ্যাস । এতে শ্রোতাদেরও বুঝতে কষ্ট হয় । বিরতি দিয়ে কথা বললে মূল বিষয়ের ওপর গুরুত্বও দেওয়া যায় । আবার খুব ধীরগতিতে কথা বললে শ্রোতারা ধৈর্য হারায় এবং শোনার আগ্রহ হারিয়ে ফেলে ।

 

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top