Lifestyle - লাইফস্টাইল

লিপস্টিক, কাজল শেয়ার করছেন অন্যদের সঙ্গে? খুব সাবধান!

“তোর লিপস্টিকের রংটা তো দারুণ! আমি লাগাব। এই তোর ব্লু আইলাইনারটা দিস তো একবার। এই আইশ্যাডোটাতো দারুন !!! এটাই আমার ড্রেসের সঙ্গে ভালো মানাবে। আমি নিলাম ।”
বন্ধু, সহকর্মী, আত্মীয়, পরিবার । কসমেটিক্স, মেক-আপ, কম-বেশি আমরা শেয়ার করেই থাকি । কখনও ইচ্ছেয়, কখনও আবার না বলতে পারি না বলে । কিন্তু জানেন কি এভাবে একজনের প্রসাধনী অন্যজনের ব্যবহার করায় বাড়তে পারে রোগ সংক্রমণের ঝুঁকি ।
লিপস্টিক- আমরা প্রায়ই এর-ওর লিপস্টিক ব্যবহার করি । বিয়েবাড়ি বা হোক বা অফিস পার্টি । কিন্তু এভাবে লিপস্টিক শেয়ার করা মানে বিপদ ডেকে আনা । কার শরীরে কোন রোগ আছে, আমরা তা জানি না । হয়তো সে নিজেই জানে না । এভাবে একটা লিপস্টিক অনেকে মিলে ব্যবহার করলে নানা ধরণের রোগ সংক্রমণ হতে পারে ।

চোখের মেক-আপ- কাজল, আইলাইনার, মাসকারা, আইশ্যাডো প্রায় আমরা মেয়েরা প্রত্যেকে ব্যবহার করে থাকি । আর চোখ হল সংবেদনশীল একটি অঙ্গ । চোখে কোনও সংক্রমণ বা ত্বকে সংক্রমণ থাকলে, তা কিন্তু প্রসাধনী শেয়ার করার মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তে পারে সহজেই । বিশেষত যাঁরা কন্টাক্ট লেন্স ব্যবহার করেন, তাঁদের বাড়তি সতর্কতা নেওয়া দরকার ।
ত্বকে সংক্রমণ- অনেকসময় অন্যের মেক-আপ স্টিক, কনসিলার, পাউডার আমরা ব্যবহার করি । এটা একেবারেই ঠিক নয় । ত্বকে সমস্যা, সংক্রমণ থাকতেই পারে । তাছাড়া মেকআপ দীর্ঘক্ষণ খোলা রাখা, এর-ওর ব্যবহারে বাইরে থেকে জীবাণু চলে আসতে পারে । সেইগুলো একাধিক জন ব্যবহার করলে, ত্বকে সমস্যা, ব়্যাশ দেখা দিতে পারে ।

মেক-আপ ব্রাশ- মেক-আপ ব্রাশ, আই লাইনার ব্রাশ নির্দিষ্ট সময় অন্তর সাবান বা শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার করে রোদে বা ড্রায়ারে শুকিয়ে নেওয়া প্রয়োজন । তা না করে, সেই ব্রাশ একাধিক জন ব্যবহার করলে, ত্বকের সমস্যার পাশাপাশি শরীরেও ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ হওয়া খুব আশ্চর্য নয় ।

লিপস্টিক, মেক-আপ টেস্টার- দোকানে গিয়ে লিপস্টিক, মেক-আপ বাছার আগে আমরা টেস্টার প্রোডাক্ট লাগিয়ে দেখে নিই টোনটা ম্যাচ করছে কিনা বা লিপস্টিকের রং কেমন আসছে । এক্ষেত্রে একই টেস্টার যেহেতু অসংখ্য মানুষ ব্যবহার করছেন, তাই সতর্ক হন । টেস্টিং-এর পণ্য মুখে কখনও ব্যবহার করবেন না । প্রয়োজনে হাতে করুন । তারপর স্যানিটাইজার দিয়ে ভাল করে মুছে নিন ।
বছর দুই ধরে বিশ্ববাসী পরিচিত হয়েছেন নভেল করোনা ভাইরাসের সঙ্গে । এই ভাইরাস আমাদের শিখিয়েছে, ছোঁয়াচ বাঁচিয়ে চলতে । করোনার ভ্যাকসিন এলেও, তা কিন্তু বিশ্ব থেকে একেবারে চলে যায়নি । তাই প্রতি মুহূর্তে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে । করোনা ছাড়াও অন্য রোগ সংক্রমণ এড়াতে প্রসাধনী বা মেক-আপ একেবারে ব্যক্তিগত রাখাই ভালো । অন্যের নয়, নিজের মেক-আপ ব্যবহার করাই এখন বুদ্ধিমানের কাজ ।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top