Lifestyle - লাইফস্টাইল

ঘুমের মধ্যে নাক ডাকার সমস্য়া, কীভাবে মিলবে সমাধান

sleep

ঘুমের মধ্যে নাক ডাকার (Snoring) সমস্যা অনেকেরই রয়েছে। মৃদু আওয়াজ থেকে শুরু করে বিকট আওয়াজ, নাক ডাকার শব্দ হতে পারে নানা রকম। এক্ষেত্রে যিনি নাক ডাকেন তাঁর ঘুমের তেমন সমস্যা না হলেও পাশে থাকা মানুষটির ঘুম ভঙ্গ হয় এই শব্দে। আরও মুশকিলের বিষয় হল, যিনি নাক ডাকেন তিনি কোনওভাবেই বুঝতে পারেন না যে তিনি নাক ডাকছেন। তাই পাশের মানুষটি তাঁকে সমস্যার কথা বললেও তিনি বিশ্বাস করতে চান না। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নাক ডাকার সমস্যা থাকলে তা মেনে নেওয়াই ভালো। মেনে নিয়ে করতে হবে সমস্যার সমাধান। কারণ, নাক ডাকা কেবল, আপনার পাশের মানুষটির ঘুম ভঙ্গ করছে না, পাশাপাশি আপনার শরীরের কিছু সমস্যার দিকেও ইঙ্গিত করছে। তাই সাবধান।

মানুষ কেন নাক ডাকেন?
নাক ডাকার পিছনে থাকতে পারে অনেক কারণ। এর নেপথ্যে থাকতে পারে ওজন বেশি থাকা, নাকের মধ্যে কোথাও বাধা তৈরি হওয়া, নাক ও গলার পেশি দুর্বল হয়ে যাওয়া, সর্দি লাগা, ধূমপান, ফুসফুসের সমস্যা ইত্যাদি ইত্যাদি। তাই নাক ডাকলে সতর্ক থাকা ছাড়া কোনও উপায় নেই।

নাক ডাকা রোধে ঘরোয়া টোটকা (Home Remedies of Snoring)

পুদিনা: পুদিনা পাতাকে ঈষদুষ্ণ জলে মিশিয়ে গার্গল করুন, দেখবেন সমস্যা কমছে। এক্ষেত্রে প্রথমে গরম জলে পুদিনা পাতা ফেলে গরম করুন। তারপর সেই জল ঠান্ডা হতে দিন। সহনসাধ্য অবস্থায় এলে গার্গল করুন।

দারচিনি: দারচিনির গুণ প্রশ্নাতীত। তাই রোজ একগ্লাস ঈষদুষ্ণ জলে দারচিনির গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। তারপর সেই জল দিয়ে করুন গার্গল।

রসুন: আয়ুর্বেদে রসুনকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়। রসুন শরীর ভালো রাখার ক্ষেত্রে বিশেষভাবে কার্যকরী। এক্ষেত্রে ঈষদুষ্ণ জলে মিশিয়ে নিন রসুন। তারপর সেই জল দিয়ে করা হোক গার্গল। দেখবেন, ভালো রয়েছেন।

অলিভ তেল: ঘুমানোর কিছুক্ষণ আগে মাত্র কয়েকদিন এক ফোঁটা করে অলিভ তেল নাকে দিন। দেখবেন, নাক ডাকার সমস্যা কমছে। কারণ, এক্ষেত্রে অলিভ তেল নাকের ভিতরের অংশ পরিষ্কার করে দেয়।

ঘি: এই সমস্যা সমাধানে ঘি হতে পারে আপনার অন্যতম হাতিয়ার। এক্ষেত্রে ঘি সামান্য গরম করুন। সহনযোগ্য অবস্থায় এলে সামান্য ঘি দুই নাকে দিন। দেখবেন কিছুদিনের মধ্যেই ফল পাচ্ছেন।

হলুদ: হলুদ নাকের অন্দর পরিষ্কার করতে পারে। এক্ষেত্রে গরম দুধের সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে খান। দেখবেন সমস্যা মিটছে।

এই কয়েকটি পদ্ধতি ব্যবহারের পর সমস্যা মিটে যাওয়া উচিত। তবে তারপরও সমস্যা না মিটলে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। তবেই নাক ডাকার সমস্যাকে বিদায় জানানো যাবে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top