Lifestyle - লাইফস্টাইল

কেবল স্বাদই নয়, বিট নুনের উপকারিতা অসীম

salt

বিট নুন খাওয়া মানেই শুধু মাত্র কয়েকটি খাবারের সঙ্গে খেতে হবে এমনটা নয়। নিয়মিত খাবারে সাদা নুন ব্যবহার করেন, পাশাপাশি খাওয়ার সময়ে আলাদা করে সাদা নুন খাওয়ার অভ্যাস রয়েছে? তবে বিট নুনের উপকারিতা সম্পর্কে অনেকের একটা স্বচ্ছ্ব ধারণা নেই। তাই সচেতনভাবে খুব একটা বিট নুন খাওয়া হয় না।

বদহজমের সমস্যা অথবা বমিভাবও হলে, বিট নুন খেলে এই সমস্যা কমবে। কারণ এই নুন শরীরের হজমশক্তি বাড়ায়। নিয়মিত বিট নুন খেলে ওজনও কমবে দ্রুত। কারণ বিট নুন শরীরের কোষগুলোতে ঠিক পরিমাণে পুষ্টি সরবরাহ করে, ফলে মেদ থাকে নিয়ন্ত্রণে।

বিট নুনে যে সব খনিজ থাকে, তাতে রয়েছে অ্যান্টি-ব্যাকটিরিয়াল উপাদান। ফলে এটি নিয়মিত খেলে শরীরে ব্যাকটিরিয়াজাত সংক্রমণের আশঙ্কা কমে। শারীরিক শক্তির অভাব মেটায় বিট নুন। এতে সোডিয়াম বেশি থাকায় শরীর অনেক বেশি তরতাজা হয়ে ওঠে।

হাড়ের ক্ষয় রোধ করার জন্য বিট নুন খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। বিট নুনে পুষ্টি উপাদান ও খনিজের পরিমাণ বেশি হওয়ায় এটি নিয়মিত খাদ্যতালিকায় রাখলে হাড় মজবুত হয়। বিট নুন খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে। ফলে ডায়াবিটিসের সমস্যায় ভুগছেন যাঁরা, তাঁরা সাদা নুনের পরিবর্তে বিট নুন খেলে উপকার পাবেন।

ঘুম থেকে উঠেই সকাল এক গ্লাস জল গরম করে তাতে বিট নুন মিশিয়ে খেলেই রোগ ব্যাধি দূরে থাকবে, এমনটায় মত বিশেষজ্ঞদের।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top