Lifestyle - লাইফস্টাইল

আপনি কি ডায়াবেটিস আক্রান্ত? বুঝতে পারছেন না

diabetes

আপনি কি ডায়াবেটিস আক্রান্ত? বুঝতে পারছেন না? আলমারি থেকে তা হলে আপনার কলেজবেলার জিনস ট্রাউজার্স বের করুন। দেখুন তা কোমরে আঁটে কিনা। না আঁটলে কিন্তু চিন্তার আছে।

সম্প্রতি এক ব্রিটিশ দৈনিকে লাইফস্টাইল বিভাগে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন সাড়া ফেলে দিয়েছে। লেখাটা একটি গবেষণাসংক্রান্ত। গবেষণার বিষয় হল ডায়াবেটিস। এবং ডায়াবেটিসের সঙ্গে জিনস ট্রাউজার্সের সম্পর্ক। ১২জনকে নিয়ে এই গবেষণাটি করেছেন ব্রিটেনের নিউক্যাসল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রয় টেইলর।

এই গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ২১ বছর বয়সে একজন যে জিনসের প্যান্টটি পরতেন, তিনি যদি এখন আর সেটি পরতে না পারেন, তাহলে তাঁর টাইপ টু ডায়াবেটিসের আশঙ্কা থাকছে। এই গবেষণার আরেকটি প্রতিপাদ্য হল, একজন মানুষের যেটি স্বাভাবিক বিএমআই (বডি মাস ইনডেক্স), সেখান থেকে তিনি যদি ওজন ১০-১৫ শতাংশ কমাতে পারেন, তাহলে তাঁর ক্ষেত্রে এই টাইপ টু ডায়াবেটিসের আশঙ্কা বেশ কিছুটা কমে যায়। আর টাইপ টু ডায়াবেটিস যদি থাকেও, তাহলেও সেটি নিয়ন্ত্রণে চলে আসে।

ডায়াবেটিস বিষয়ে বিশ্বের সেরা বিশেষজ্ঞরা এই বিষয়ে একমত হয়েছেন যে, কোনো ব্যক্তি ২১ বছর বয়সে যে জিনসের প্যান্টটি পরতেন, সেটি যদি তিনি এখনও পরতে পারেন, তাহলে তার টাইপ টু ডায়াবেটিস হওয়ার আশঙ্কা কম। আর যদি তিনি সেটা পরতে না পারেন, তাহলে তাঁর টাইপ টু ডায়াবেটিসের আশঙ্কা থাকছে। তিনি তাঁর ২১ বছরের জিনস ট্রাউজার্সটি পরতে পারছেন না মানে তিনি যথেষ্ট পরিমাণ ওজন বাড়িয়ে ফেলেছেন। যা তাঁর শরীরে টাইপ টু ডায়াবেটিসকে ডেকে আনার পক্ষে যথেষ্ট। ওই ১২ জনের মধ্যে ৮ জন ১০-১৫ শতাংশ ওজন কমিয়ে টাইপ টু ডায়াবেটিস থেকে তুলনামূলকভাবে নিরাপদও আছেন বলে জানা গিয়েছে।

যাঁদের ওজন সামান্য বেশি, তাঁদের প্রতিদিন লো ক্যালরি লিকুইড ডায়েট অনুসরণ করতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তাঁদের ক্ষেত্রে প্রতিদিন ৮০০ ক্যালোরির বেশি গ্রহণ করা যাবে না বলে মাত্রা বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top