Lifestyle - লাইফস্টাইল

একলা বেড়াতে যেতে হলে, কী কী বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন

একলা বেড়াতে যেতে হলে, কী কী বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন
অনেক সময় দেখা যায় বন্ধুরা মিলে পরিকল্পনা করা হলো কোথাও ঘুরতে যাওয়ার। কিন্তু শেষমেশ দেখা যায় অনেক কারণ দেখিয়ে সবাই পিছিয়ে গেছে। যাওয়ার পরিকল্পনাটাই মাটি হয়ে গেল বলে, এক্ষেত্রে অনেকেই ভরসা হারিয়ে একাই বেরিয়ে পড়েন। একলা বেড়াতে যেতে হলে, কী কী বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন

 

নিজেকে নিজেই সঙ্গ দেন। এটাও কিন্তু খারাপ নয়। নিজে একা একা ঘোরার মধ্যেও অন্যরকম একটা স্বাদ আছে। অবশ্যই যদি সঠিকভাবে চলাফেরা করা যায়।

একা ঘুরতে যাওয়ার ব্যাপারটি প্রত্যেকের জীবনেই একবার হলেও উপভোগ করা উচিৎ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই তা হয় অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য কিংবা ব্যাপারটা আসলে কীরকম সেটি জানার জন্যে কৌতুহল বশত। অনেকেই আবার মনে করেন এই অভিজ্ঞতা তাদের জীবনকে বদলে দেবে।

আমাদের দেশে এমন অনেক জায়গা আছে যেখানে অনায়াসেই একা ঘুরে আসতে পারেন। পাহাড় কিংবা সমুদ্র কিংবা কোনও বিখ্যাত ভ্রমণকেন্দ্র, যে কোনও জায়গাতেই যেতে পারেন আপনি।

একা একা ঘুরতে হলে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে। তাহলে ঝক্কি ঝামেলা এড়িয়ে অনায়াশে আনন্দদায়ক ভ্রমণ উপভোগ করতে পারবেন।

নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ:
নতুন নতুন মানুষের সঙ্গে কথা বলুন। ঘুরতে যাওয়ার সব থেকে মজার ব্যাপার হলো আপনি প্রচুর নতুন মানুষের সঙ্গে আলাপের সুযোগ পাবেন, যারা আপনার পরিচিত গন্ডির বাইরে। নতুন মানুষের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করুন।

আত্মবিশ্বাসী হোন:
ক্যাফেটেরিয়া কিংবা যেখানে আপনি থাকবেন সেখানে সবার সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ কথোপকথন শুরু করতে উদ্যোগী হয়ে উঠুন। এতে আপনার একঘেয়েমি কাটবে। এই ব্যাপারে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী হওয়াই শ্রেয়।

সোশ্যাল লাইফ থেকে দূরে থাকা:
বৈদ্যুতিন মাধ্যমগুলোকে দূরে সরিয়ে রাখুন। অন্তত কিছু সময়ের জন্য মোবাইল ফোন, আইপড কিংবা ট্যাব এগুলো থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখুন। বেড়াতে আসার উদ্দেশ্য নতুন নতুন জায়গা দেখা, নতুন জিনিস আবিষ্কার করা। তাই চোখ ও প্রাণ ভরে চারপাশে দেখুন এবং উপভোগ করুন।

নিজেকে উপহার দিন:
নিজেকে আবিষ্কার করুন নতুন ভাবে। নিজের সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারনা তৈরি করুন। প্রকৃত ভালোলাগা গুলোকে আবিষ্কার করুন। নিজেকে নিজেই উপহার দিন। কারুর ভরসায় মনকে ফেলে না রেখে নিজেই নিজের খুশির কারণ হয়ে উঠুন। দেখবেন জীবনের রঙ অনেকটা পাল্টে গিয়েছে।

স্থানীয় সব খাবারের স্বাদ পরখ করুন:
নতুন জায়গার নতুন খাবার খেয়ে দেখুন। এতে নিজের সম্পর্কে অস্বচ্ছ ধারণাগুলো একটা পরিপূর্ণ আকার ধারণ করবে। নিজেকে কখনও একা মনে করবেন না। নিজেকে এই ভ্রমণের আনন্দগুলো মনে করিয়ে দিন বার বার। দেখবেন, কখনও কখনও নিজেদের আরামদায়ক চেনা সীমানার বাইরে বেরোনোটা কিন্তু মোটেও খারাপ নয়।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top