Lifestyle - লাইফস্টাইল

ত্বকের যত্নে ক্রিম নয়, ভরসা রাখুন নিমপাতায়

Neem

নিম হল এমন একটি বৃক্ষ, যার ডাল, পাতা, কাণ্ড এমনকি শিকড়ও আমাদের কাজে লাগে। নিমের কাঠ খুবই শক্ত হয়। যার ফলে নিম কাঠে উইপোকা বাসা বাঁধতে পারে না। তাই নিম কাঠ দিয়ে আসবাবপত্রও তৈরি করা হয়। এছাড়াও স্বাস্থ্যের জন্য নিমপাতা ও নিমডাল দরুন কার্যকরী। এর পাশাপাশি ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেও নিমপাতার গুরুত্ব অপরিসীম। ত্বকের যত্নে ক্রিম নয়, ভরসা রাখুন নিমপাতায়। চলুন একনজরে দেখে নেওয়া যাক ত্বকের যত্নে নিমপাতার কিছু ব্যবহার।

১) নিমপাতার সঙ্গে কাঁচা হলুদ ভালো করে বেটে মুখে মাখুন। কিছুক্ষণ পর জল দিয়ে ধুয়ে নিন। তবে মাথায় রাখবেন মিশ্রণে হলুদের থেকে নিমপাতার পরিমাণ যেন বেশি হয়। এতে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে।

২) নিমপাতা ভালো করে ফুটিয়ে নিন। এরপর পেস্ট তৈরি করে মুখে মাখুন। ১০-১৫ মিনিট পর ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে নিন। নিয়মিত ব্যবহার করলে সহজেই ত্বকের কালো দাগ থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে।

৩) কয়েকটি নিমপাতা, অল্প হলুদের গুঁড়ো এবং ঠাণ্ডা দুধ দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। পেস্টটি ত্বকে ভালো করে ম্যাসাজ করুন। ১৫ মিনিট পর শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এতে ত্বক ভালো থাকবে ও তৈলাক্ত ভাবও দূর হবে।

৪) নিমপাতার পাউডার, গোলাপজল এবং পাতিলেবুর রস একত্রে মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি ২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখুন। এবারে শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। সপ্তাহে ৩ দিন ব্যবহার করলে খুব সহজেই ব্রণ দূর হয়ে যাবে।

৫) ১ চামচ বেসন, ১ চামচ টকদইয়ের সঙ্গে নিমপউডার দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। পেস্টটি ভালো করে ত্বকে ম্যাসাজ করুন। ২০ মিনিট পর জল দিয়ে ধুয়ে নিন। শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে এই প্যাকটি খুবই উপকারী। এর পাশাপাশি এতে ত্বকের কালচে দাগ থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়।

৬) নিমপাতা ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাক বিরোধী। কয়েকটি নিমপাতা বেটে তাতে সামান্য পরিমাণ সর্ষের তেল দিয়ে মিশিয়ে নিন। প্রতিদিন স্নানের আগে এই মিশ্রণটি ব্যবহার করুন। এতে ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাকের আক্রমণ থেকে ত্বক সুরক্ষিত থাকে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতাও বৃদ্ধি পায়।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top