Lifestyle - লাইফস্টাইল

উধাও সবুজ, বিপন্ন হচ্ছে শহরের শৈশব

শহরে এখন অনেক ইংরেজি মাধ্যম স্কুলই শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। অনেক শিশুরোগ চিকিৎসকদের দাবি, শীতাতপ যন্ত্রের ফিল্টার ঠিক মতো পরিষ্কার না হলে পড়ুয়াদের শ্বাসকষ্টের বড় কারণ হতে পারে সেটি।
উন্নয়নের চাপে পথের দু’ধার থেকে উধাও হচ্ছে সবুজ। বাড়ছে গাড়ির সংখ্যা, সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বায়ুদূষণ। এই আবহে শ্বাসকষ্টজনিত রোগে আক্রান্ত।
শিশু-কিশোরের সংখ্যা বৃদ্ধিও উদ্বেগজনক জায়গায় পৌঁছেছে বলে মত শিশুরোগ
চিকিৎসকদের।
শহরের ফুসফুস রক্ষায় এখনই দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া না হলে শহরের শৈশব বিপন্ন হবে! এমনই অশনি সঙ্কেত দিয়েছেন
শিশুরোগ চিকিৎসকরা।

শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডা.অনুপ কুমার মঙ্গল বলছেন,
‘‘এখন যে বাচ্চাদের চিকিৎসা করি, তাদের অন্তত পঞ্চাশ শতাংশ শ্বাসকষ্টে ভুগছে। ভিটামিড ডি-র অভাব, এমনকি অ্যালার্জিতেও ভুগছে ছোটরা। এর বড় কারণ বাতাসের দূষণ।’’ তাছাড়া ‘জিনগত কারণে শিশুরা হাঁপানি, শ্বাসকষ্টজনিত রোগের শিকার হলে সে ক্ষেত্রে কিছু করার থাকে না। কিন্তু পরিবেশের কারণে শ্বাসকষ্ট হলে তা নিয়ন্ত্রণ করা যেতে পারে!’ সেই পথ খুঁজতেই চলছে নানা গবেষণা।
সচেতনতার চার ধাপ:
– শিশুদের ধুলো থেকে দূরে রাখুন
– দূষণ বেশি এমন এলাকায় বিশেষ মুখোশ পরান
– কোন খাবারে সন্তানের এলার্জি, খেয়াল করুন
– স্যাঁতসেঁতে জায়গা এড়িয়ে চলুন
চিকিৎসকদের মতে, সেপ্টেম্বর-নভেম্বরে শহরে শ্বাসকষ্টের সমস্যা বেশি দেখা দেয়। উৎসবের মরসুমের বিভিন্ন উপাদানই তার কারণ। চিকিৎসকরা জানান, সিটিগুলোর বায়ুর গুণমান সূচক (এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স) দিনদিন খারাপ হচ্ছে। এমনি যদি চলতে থাকে, তা হলে উদ্বেগের মাত্রা আরও বাড়বে। এর কারণ ব্যাখ্যায় এক বিশেষজ্ঞের বক্তব্য, উৎসবে জনসমাগমের কারণে বাতাসে ধূলিকণার পরিমাণ বেশি থাকে। তা ছাড়া ধূপ, ধুনুচি, ফুল, এ সবও শ্বাসকষ্টের ক্ষেত্রে অনুঘটকের কাজ করে। চিকিৎসকদের কথায়, ‘‘উৎসব মানে আবেগ, উত্তেজনা। ঘটনা হল,
আবেগ-উত্তেজনাও শরীরে ঘুমিয়ে থাকা শ্বাসকষ্টকে জাগিয়ে তুলতে পারে!’’
শুধু কী তাই! শহরে এখন অনেক ইংরেজি মাধ্যম স্কুলই শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত। অনেক শিশুরোগ চিকিৎসকদের দাবি, শীতাতপ যন্ত্রের ফিল্টার ঠিক মতো পরিষ্কার না হলে পড়ুয়াদের শ্বাসকষ্টের বড় কারণ হতে পারে সেটি। তাদের মতে, ‘‘সবাই সচেতন না হলে এই পরিস্থিতির মোকাবিলা সম্ভব নয়। চিকিৎসক হিসেবে
অভিভাবকদের সচেতন করব আমরা। বিভিন্ন স্কুলেও সচেতনতার প্রচার চালাতে হবে এজন্যে।’’

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Most Popular

To Top